স্কিনি বা চর্মসার নারীদের চেয়ে স্বাস্থ্যবান ফিগারের নারীরাই বেশি আকর্ষণীয়!

স্কিনি বা চর্মসার নারীদের চেয়ে স্বাস্থ্যবান ফিগারের নারীরাই বেশি আকর্ষণীয়!

বর্তমানে একটা ট্রেন্ড অনেক জনপ্রিয়, প্রশ্ন হচ্ছে কি সেই ট্রেন্ড? বন্ধুরা বলছিলাম মেয়েদের ডায়েটিং করে জিরো ফিগার হওয়ার নিরন্তর প্রচেষ্টার কথা। সব মেয়েরাই বর্তমানে কম বেশি এই ঝোঁকে আসক্ত! কিন্তু অনেকেই ভুলে যান ডায়েটিং করতে গিয়ে আপনার শরীরে পুষ্টি উপাদানের এক ভয়ানক ঘাটতি দেখা দিচ্ছে যা আপনার শরীরকে আকর্ষণীয় করলেও আপনাকে ধীরে ধীরে অসুস্থ করে ফেলছে! আপনাদের একটা কথা স্মরণ করিয়ে দিচ্ছি সেটা হলো বেশীরভাগ বড় নামিদামি প্রতিষ্ঠানগুলো জিরো ফিগারের মডেলদের ব্যান বা নিষিদ্ধ করে দিচ্ছে কারণ মেয়েরা ঐ সব মডেলদের দেখে আকৃষ্ট হয়ে জিরো ফিগারের আশায় নিজের শরীরের সুস্থতার বারোটা বাজাচ্ছে! বন্ধুরা, আমাদের এই নিবন্ধে আমরা সেই সব অতি আকর্ষণীয় নারীদের উপস্থাপন করছি যারা প্রমাণ করেছেন স্কিনি বা জিরো ফিগার না বরং স্বাস্থ্যবান ফিগারেই মেয়েরা অনেক বেশি আবেদনময়ী ও আকর্ষণীয়!

১. ৪৩ পাউন্ড থেকে ১১০ পাউন্ড! 

এই আবেদনময়ী বলেন, “আমি শুধুমাত্র ওজন অর্জন করিনি! নিজেকে পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে আমি সুখ ও স্বাস্থ্য অর্জন করেছি, এবং আমি মানসিক স্বাধীনতা অর্জন করেছি। ” কি বন্ধুরা! বিশ্বাস হলো কি? আরো সারপ্রাইজ আছে সামনে পড়ুন! 

২. ১০৩ পাউন্ড থেকে ১২৫ পাউন্ডে উত্তীর্ণ হবার একটি সফর! 

তিনি বলেন, “আমার ফিটনেসের যাত্রা দেড় বছর ধরে চলছে এবং আমি সবসময় নিজের উপর আত্নবিশ্বাসী ছিলাম পাশাপাশি কঠোর পরিশ্রম করেছি। কিন্তু তাতে আমার দুঃখ নেই বরং যখন আমি পিছে ফিরে তাকাই আমার নিজেকে গর্বিত মনে হয়!”

৩. ১০৩ পাউন্ড থেকে ১৩২ পাউন্ড! 

“চর্মসার” হওয়ার উপর মনোযোগ দেওয়ার চেষ্টা করবেন না এবং শুধুমাত্র আপনার সামগ্রিক স্বাস্থ্যের দিকে মনোযোগ দিন – যা মূলত মানসিক এবং শারীরিক স্বাস্থ্যের মধ্যে সমন্বয়কে বোজাচ্ছি। যদি কেউ আপনাকে আপনার মতের বিরুদ্ধাচরণ করে তাতে কান দেবেন না।”

৪. একটি উল্টো রূপান্তর যা সারাজীবনের জন্য! 

ছবিতে যাকে দেখতে পাচ্ছেন তিনি আগে ডায়েট ও জিম করে শরীরের এমন অবস্থা করেছিলেন(বামে)! কিন্তু নিজেই উপলব্ধি করলেন যে তাকে আকর্ষণীয় লাগছে না, পাশাপাশি স্বাস্থ্য ঝুঁকি ও হচ্ছিল। এজন্যই তিনি নিজের শরীরকে পুনর্গঠন করেছেন ( ডানে!)। আপনারাই বলুন কাকে বেশি ভালো লাগছে! 

৫.চর্মসার ৯২ পাউন্ড থেকে সুস্বাস্থ্যবান ১২৩ পাউন্ড!  

“আমি ওজন অর্জন করতে চেয়েছিলাম এবং আমার শরীরের নিয়ে সুখী হতে চেয়েছিলাম, এক্ষেত্রে অনেক মেয়ে্রাই আমাকে আমার লক্ষ্য থেকে দূরে সরানোর চেষ্টা করেছিল। আজ আমি আমার শরীরের কাঠামো নিয়ে সত্যি অনেক খুশী!”

৬. সমতল নিতম্ব থেকে প্রকাণ্ড নিতম্ব! 

জিরো ফিগারে থাকার ইচ্ছা আমি বহু আগেই ঝেড়ে ফেলেছি! এখন নিজেকে আরো বেশি আকর্ষণীয় লাগে নিজের কাছেই! 

৭. চকলেট খান আর সুখী থাকুন! 

“ধীরে ধীরে আমি আমার সত্যিকারের শরীরে ফিরে যাচ্ছি! এটাই ‘প্রাকৃতিক আমি’ কোন ‘কৃত্তিম উপায়ে সৃষ্ট আমি’ নই!” এভাবেই নিজের ভাবনা প্রকাশ করেন এই অনন্যা!  

৮. ৮৫ পাউন্ড থেকে ১৪০ পাউন্ড! 

এই পরিবর্তনটা সত্যি মাইন্ড ব্লোয়িং অ্যান্ড স্টানিং! 

৯. ১১৭ থেকে ১৩০ পাউন্ডে এক অসাধারণ রূপান্তর! 

এই মহিলার একটি দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলেন এবং পরে তিনি কিছু ওজন অর্জন করেন, বতমানে তিনি একটি শক্তিশালী এবং স্বাস্থ্যকর শরীরের অধিকারী হিসেবে আত্নপ্রকাশ করতে সক্ষম হয়েছেন!

১০. নির্যাতন থেকে সুখ! 

একসময় অতিরিক্ত ডায়েট করে কৃত্তিম সাজতে গিয়ে নিজেকেই হারিয়ে ফেলেছিলেন এই রমণী! আজ তিনি অনেক আনন্দিত বোধ করছেন! তিনি বলেন, “এটাই আমার আকাঙ্ক্ষিত কাঠামো যা আমি হারিয়ে ফেলেছিলাম!” 

প্রিয় পাঠক, কোন পরিবর্তনটি আপনার বেশি ভালো লেগেছে এবং আপনারা কি আমাদের সাথে একমত তা আমাদের মতামত জানাতে পারেন! সাথে থাকার জন্য  অনেক অনেক ধন্যবাদ..

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




Copyright By banglarchokh24        
Design BY NewsTheme